সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৫:০৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম কমানোর দাবিতে গাইবান্ধায় বাসদ মার্কসবাদীর পথসভা গাইবান্ধায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড গাইবান্ধায় কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক  সমিতির মানববন্ধন রক্তে ভেজা তিনফসলি জমিতে ইপিজেড নির্মাণের পরিকল্পনা বাতিলের দাবি গাইবান্ধায় সাঁওতাল বাঙালি যুব সাংস্কৃতিক উৎসব অনুষ্ঠিত  সালামের খুনিদের গ্রেফতারের দাবিতে গাইবান্ধায় জাতীয় যুব জোটের মানববন্ধন ভোজ্য তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ মিছিল গাইবান্ধায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন গাইবান্ধায় এসএসসি ব্যাচ  ৯৩ এর পুনর্মিলনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কাবিলের বাজারে সিএনজির ধাক্কায় মোটর সাইকেল আরোহী নিহত

গাইবান্ধায় মাকে হত্যার দায়ে ছেলের মৃত্যুদণ্ড

সাপ্তাহিক দারিয়াপুর ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২১
  • ২২৮

Hits: 51

গাইবান্ধা সদর উপজেলার শিবপুর গ্রামে মাকে পিটিয়ে হত্যা মামলায় ছেলে জিয়াউল হক (৪৪) কে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে জেলা দায়রা জজ আদালত।
গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক দীলিপ কুমার ভৌমিক এ রায় দেন। মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত জিয়াউল হক ওই গ্রামের নুরুল ইসলাম খন্দকারের ছেলে।
মামলার এজাহার সুত্রে জানা গেছে, গত ২০১৮ সালের ১২ জুন বিকালে সদর উপজেলার শিবপুর গ্রামে জিয়াউল হক তার ছোট ভাই জোবায়ের খন্দকারের কাছে কিছু টাকা ধার চায়। জোবায়ের টাকা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে জিয়াউল তাকে এলোপাথারি মারপিট করে। এ সময় তার বৃদ্ধা মা জোহুরা বেগম বাধা দিতে এগিয়ে গেলে জিয়াউল তাকে ক্রিকেট খেলার ব্যাট দিতে আঘাত করে। এসময় তার তিনি গুরুতর আহত হন। আহত অবস্থায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ওইদিন রাতে তিনিমারা যান। এ ঘটনার পরদিন জিয়াউলের বাবা বাদী হয়ে গাইবান্ধা সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার দীর্ঘ শুনানী শেষে বিচারক আজ এ রায় দেন।
এই মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ফারুক আহমেদ প্রিন্স ও আসামি পক্ষের অ্যাডভোকেট মাসুদার রহমান বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন। এব্যাপারে আদালতের পাবলিক প্রসিউকিটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ফারুক আহমেদ প্রিন্স বলেন, মামলার দীর্ঘ শুনানী শেষে বিচারক বৃহস্পতিবার এ রায় দেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | সাপ্তাহিক দারিয়াপুর

কারিগরি সহায়তায় : শাহরিয়ার হোসাইন