রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গাইবান্ধা জেলা শিল্পকলা একাডেমীর নির্বাচন সম্পন্ন গাইবান্ধায় যুব ইউনিয়নের জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ মিছিল প্রেসক্লাব গাইবান্ধার অভিষেক ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠিত গাইবান্ধায় পুলিশে নিয়োগ পরীক্ষার ফল প্রকাশ খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং চিকিৎসার দাবিতে বিক্ষোভ গাইবান্ধায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত মহান রুশ বিপ্লব ও পার্টির ৪১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর ডাক মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গাইবান্ধায় কমিউনিস্ট পার্টি বিক্ষোভ গোবিন্দগঞ্জ সড়কে সকালেই প্রাণগেল ৬ জনের

ছাত্রলীগ নেতা রকি হত্যা: আড়াই মাস পেরিয়ে গেলেও গ্রেপ্তার হয়নি মূল আসামী

মো. রওশন আলম পাপুল  
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৮৫
২ মাস ১৪ দিন পেরিয়ে গেলেও গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আশিকুর রহমান রকি হত্যার মূল আসামীকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি গাইবান্ধা সদর থানার পুলিশ।
গ্রেপ্তার করতে পারেনি এজাহারনামীয় অন্য আরও দুই আসামীকেও। সেই সাথে হত্যার রহস্যও উদঘাটন করতে পারেনি তারা। তাই এই ছাত্রলীগ নেতার হত্যাকারী সকল আসামীকে অতিদ্রুত গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।
রবিবার দুপুরে ফুলছড়ির মধ্য কঞ্চিপাড়া গ্রামে আশিকুর রহমানের বাড়িতে এলাকাবাসী ও বন্ধুমহলের পক্ষ থেকে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নিহত আশিকুর রহমান রকির বড় ভাই মো. আতিকুর রহমান রোস্তম।
লিখিত বক্তব্যে মো. আতিকুর রহমান রোস্তম বলেন, আমার ছোট ভাই ফুলছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আশিকুর রহমান রকি দীর্ঘদিন ধরেই বেশ সুনামের সাথে ছাত্রলীগের রাজনীতি করে আসছে। এমতাবস্থায় চলতি বছরের ১১ জুলাই রাত সাড়ে নয়টার দিকে অসুস্থ্য মায়ের ওষুধ কিনে গাইবান্ধা জেলা শহর থেকে ফুলছড়ি উপজেলার মধ্যকঞ্চিপাড়া গ্রামের বাসায় ফিরছিলেন। ফেরার পথে গাইবান্ধা-বালাসীঘাট সড়কের গাইবান্ধা পৌরসভা এলাকায় হালিম বিড়ি ফ্যাক্টরির মোড়ে আমার ভাই ফুলছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আশিকুর রহমান রকিকে নৃশংসভাবে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। এই হত্যাকাÐের মূল পরিকল্পনাকারী গাইবান্ধা পৌরসভার পূর্বপাড়া এলাকার মো. কাঞ্চন ও ইমরান খান। তাদের সহযোগি ছিল মানিক মিয়া ও সোহাগ মিয়াসহ বেশ কয়েকজন। আসামীরা জনসম্মুখে আমার ভাইকে খুন করলেও পুলিশ এজাহারভূক্ত মূল আসামীসহ অন্যদের আজও গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এজাহারভূক্ত মাত্র একজন ও অজ্ঞাতনামা চার আসামীকে গ্রেপ্তার করে বসে আছে।
মো. আতিকুর রহমান রোস্তম আরও উল্লেখ করেন, এতো উন্নত তথ্যপ্রযুক্তি থাকার পরও মূল আসামীসহ অন্য আর কোন আসামীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারছে না। যা আমাদেরকে উদ্বিগ্ন করছে। সেই সাথে আশিকুর রহমান রকি হত্যার রহস্য বা কি কারণে তাকে হত্যা করা হলো তাও পুলিশ জানাতে পারেনি। আমার ভাইকে বিনাকারণে হত্যা করা হয়নি। এর পেছনে অন্য কোন রহস্য আছে। আর তাই রহস্যের উদঘাটনসহ আমার ভাইকে হত্যায় যেসব আসামী জড়িত তাদের প্রত্যেককে অতিদ্রæত গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে ফাঁসির দাবি করেন মো. আতিকুর রহমান রোস্তম।
সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন ফুলছড়ি উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এটিএম রাশেদুজ্জামান রোকন, গাইবান্ধা পৌরসভার সাবেক কমিশনার আবু আল খায়ের, নিহত আশিকুরের বড়বোন হাছিনা বেগম, চাচা আবদুল হালিম ও ইউপি সদস্য খলিলুর রহমান প্রমুখ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | সাপ্তাহিক দারিয়াপুর

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com