সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম কমানোর দাবিতে গাইবান্ধায় বাসদ মার্কসবাদীর পথসভা গাইবান্ধায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড গাইবান্ধায় কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক  সমিতির মানববন্ধন রক্তে ভেজা তিনফসলি জমিতে ইপিজেড নির্মাণের পরিকল্পনা বাতিলের দাবি গাইবান্ধায় সাঁওতাল বাঙালি যুব সাংস্কৃতিক উৎসব অনুষ্ঠিত  সালামের খুনিদের গ্রেফতারের দাবিতে গাইবান্ধায় জাতীয় যুব জোটের মানববন্ধন ভোজ্য তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ মিছিল গাইবান্ধায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন গাইবান্ধায় এসএসসি ব্যাচ  ৯৩ এর পুনর্মিলনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কাবিলের বাজারে সিএনজির ধাক্কায় মোটর সাইকেল আরোহী নিহত

কামারদহ ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ

মোঃ উজ্জল হক প্রধান, গোবিন্দগঞ্জ:
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৪২

Hits: 12

দুর্নীতিমুক্ত ইউনিয়ন পরিষদ গড়তে যত্ন প্রকল্পের সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে কার্ড প্রতি দুইশ টাকা চাঁদা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।
এই টাকায় দুর্নীতিমুক্ত পরিষদ গঠন করবেন বলে সাংবাদিকদের জানান ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুল ইসলাম তৌফিক।
ঘটনাটি ঘটেছে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নে।
বুধবার বিকালে ইউনিয়ন কমপ্লেক্স ভবনে ইউনিয়নের ১৩শ সুবিধাভোগীদের ভাতার টোকেন বিতরণ করা হয়। এসময় প্রত্যেক সুবিধাভোগীর নিকট থেকে দুইশ করে টাকা চাঁদা নেয়া হয় টোকেন বাবদ।
সুবিধাভোগীরা এর প্রতিবাদ করলেও ইউনিয়ন পরিষদের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান এ টাকা ইউনিয়নের উন্নয়নের খরচ করা হবে। বিষয়টিতে ক্ষুব্ধ হয়ে ঐদিনই এক সুবিধাভোগীর স্বামী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে অভিযোগ দারে করেন। বিষয়টিতে সরেজমিনে সাংবাদিকরা উপস্থিত হয়ে সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে চাঁদা তোলার ভিডিও ধারণ করে।
উপস্থিত সুবিধাভোগীরা অভিযোগ করেন, এর আগে কখনো টাকা নেয়া হত না। কিন্তু নতুন চেয়ারম্যান আসার পর থেকে আমাদের প্রতি কার্ডের বিপরীতে দুইশ’ করে টাকা দিতে হচ্ছে। এটা অন্যায়  আমরা সুষ্ঠু বিচার চাই।
এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুল ইসলাম কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, দুর্নীতি মুক্ত ইউনিয়ন পরিষদ গড়তে এই টাকা নেয়া হচ্ছে। পরিষদ থেকে সেবা নিতে হলে প্রত্যেককে ট্যাক্স  দিতে হবে। আরো বলেন বয়স্ক,বিধবা, প্রতিবন্ধি, যত্ন ভাতা যে কোন সুবিধা জনগন পাননা কেন? সকলকে টাকা দিতে হবে। টাকা গ্রহনের বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানে কি এমন প্রশ্নে? তিনি জানান তাকে জানানো হয়নি।
এ বিষয়ে উপজেলা (ভারপ্রাপ্ত)চলতি দায়িত্বে নির্বাহী কর্মকর্তার তরিকুল ইসলামের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, টাকা নেওয়ার কোন সুযোগ নেই, যদি তা গ্রহন করে কঠোর প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | সাপ্তাহিক দারিয়াপুর

কারিগরি সহায়তায় : শাহরিয়ার হোসাইন