মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:৫৯ অপরাহ্ন
ঘোষণা :
গাইবান্ধায় কৃষক সমিতির জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত।। ছাদেকুল মাস্টার সভাপতি, জাহাঙ্গীর আলম সাঃ সম্পাদক হামলা মামলা করে কমিউনিস্ট পার্টিকে দমানো যাবে না- মিহির ঘোষ গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির উপজেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত এমদাদুল সভাপতি শফিকুল সাধারণ সম্পাদক গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ গাইবান্ধায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ গাইবান্ধায় কমিউনিস্ট পাার্টির বিক্ষোভ সমাবেশ যারা রাজনীতিকে খেলায় পরিণত করেছে তাদের লাল দেখিয়ে বিদায় করতে হবে – গাইবান্ধার জনসভায় প্রিন্স কাগজসহ শিক্ষা উপকরণের দাম কমানোর দাবিতে গাইবান্ধায় ছাত্র ইউনিয়নের বিক্ষোভ পল্লী রেশনিং চালুসহ ৬দফা দাবিতে গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির বিক্ষোভ আদিবাসী সাঁওতাল হত্যার বিচার করতে হবে, তাদের বাপদাদার জমি ফেরত দিতে হবে – অধ্যাপক এম এম আকাশ
শিরোনাম :
গাইবান্ধায় কৃষক সমিতির জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত।। ছাদেকুল মাস্টার সভাপতি, জাহাঙ্গীর আলম সাঃ সম্পাদক হামলা মামলা করে কমিউনিস্ট পার্টিকে দমানো যাবে না- মিহির ঘোষ গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির উপজেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত এমদাদুল সভাপতি শফিকুল সাধারণ সম্পাদক গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ গাইবান্ধায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ গাইবান্ধায় কমিউনিস্ট পাার্টির বিক্ষোভ সমাবেশ যারা রাজনীতিকে খেলায় পরিণত করেছে তাদের লাল দেখিয়ে বিদায় করতে হবে – গাইবান্ধার জনসভায় প্রিন্স কাগজসহ শিক্ষা উপকরণের দাম কমানোর দাবিতে গাইবান্ধায় ছাত্র ইউনিয়নের বিক্ষোভ পল্লী রেশনিং চালুসহ ৬দফা দাবিতে গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির বিক্ষোভ আদিবাসী সাঁওতাল হত্যার বিচার করতে হবে, তাদের বাপদাদার জমি ফেরত দিতে হবে – অধ্যাপক এম এম আকাশ

সুন্দরগঞ্জে বন্যায় ৫’শ ৫৫ হেক্টর জমির ফসলের ক্ষতি

সাপ্তাহিক দারিয়াপুর ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৬২

Hits: 5

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। গত তিনদিন থেকে পানি কমতে শুরু করেছে। তবে এখনও দূর্গম চরাঞ্চলের অনেক বসতবাড়ি হতে পানি নেমে যায়নি। বন্যায় উপজেলার তারাপুর, বেলকা, হরিপুর, চন্ডিপুর, শ্রীপুর ও কাপাসিয়া ইউনিয়নের ৫৫০ হক্টর জমির ফসল ডুবে গেছে। এর মধ্যে আমন ধান ৫২০ হেক্টর এবং তরিতরকারি ৩৫ হেক্টর।
উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত ক্ষয়ক্ষতির পরিমাপ নিরুপন করা সম্ভব হয়নি। বন্যার পরবর্তী ফসলি জমি হতে পানি নেমে গেলে সঠিকভাবে ক্ষক্ষতির পরিমাপ করা যাবে। চরাঞ্চলে বসবাসরত পরিবারগুলো এখনও নৌকা দিয়ে যাতায়াত করেছে। বেলকা নবাবগঞ্জ চরের আরমান আলী জানান, তার ২ বিঘা জমির আমন ধান বন্যার পানিতে ডুবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এখনও জমি থেকে পানি নেমে যায়নি। আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যে পানি নেমে গেলে ফসলের তেমন ক্ষতি হবে না।
উপজেলা কৃষি অফিসার রাশিদুল কবির জানান, বন্যায় উপজেলার ৫৫৫ হেক্টর জমির ফসল ডুবে গেছে। বন্যা পরবর্তী সময়ে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাপ নির্ধারন করা সম্ভব। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ফসলি জমি থেকে পানি নেমে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পানি কম হলে ক্ষতির সম্ভাবনা কম হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | সাপ্তাহিক দারিয়াপুর

কারিগরি সহায়তায় : শাহরিয়ার হোসাইন