রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গাইবান্ধা জেলা শিল্পকলা একাডেমীর নির্বাচন সম্পন্ন গাইবান্ধায় যুব ইউনিয়নের জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ মিছিল প্রেসক্লাব গাইবান্ধার অভিষেক ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠিত গাইবান্ধায় পুলিশে নিয়োগ পরীক্ষার ফল প্রকাশ খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং চিকিৎসার দাবিতে বিক্ষোভ গাইবান্ধায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত মহান রুশ বিপ্লব ও পার্টির ৪১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর ডাক মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গাইবান্ধায় কমিউনিস্ট পার্টি বিক্ষোভ গোবিন্দগঞ্জ সড়কে সকালেই প্রাণগেল ৬ জনের

ফুলছড়িতে টিআর প্রকল্পের মসজিদ সংস্কারের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

সাপ্তাহিক দারিয়াপুর ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৮ আগস্ট, ২০২১
  • ৫৩
গাইবান্ধার ফুলছড়িতে উড়িয়া ইউনিয়নের দাড়িয়ারভিটা জামে মসজিদ সংস্কারের জন্য বরাদ্দকৃত টিআর প্রকল্পের একটি টাকাও পায়নি মসজিদ কমিটি।
উপজেলা পরিষদের অংশ থেকে বরাদ্দকৃত এ প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার (পিআইও) দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টিআর-নগদ টাকা) সাধারণ কর্মসূচির আওতায় চতুর্থ পর্যায়ের ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদের ২০% বরাদ্দ থেকে ফুলছড়ি উপজেলার উড়িয়া ইউনিয়নের দাড়িয়ারভিটা জামে মসজিদ ঘর সংস্কারের জন্য এক লক্ষ টাকা প্রদান করা হয়।
গত জুন মাসে দাড়িয়ারভিটা জামে মসজিদ সংস্কারের জন্য বরাদ্দকৃত সমুদয় টাকা উত্তোলন করা হয়। কিন্তু অদ্যবধি উক্ত টাকা সংস্কারের কাজে ব্যবহার করা হয়নি বলে দাবী করেছে মসজিদ কমিটি।
সরেজমিনে শনিবার দুপুরে ওই মসজিদ কমিটির সদস্য ও মুসল্লিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ওই মসজিদের নামে এক লক্ষ টাকার বরাদ্দের কথা তাঁরা লোকমুখে শুনেছেন। তারা জানান, মসজিদের নামে টিআরের টাকা বরাদ্দের বিষয়টি মসজিদ কমিটির সভাপতিসহ সাধারণ মুসল্লিরা জানতেন না। মসজিদের মুসল্লিদের না জানিয়ে প্রকল্পের চেয়ারম্যান আলী আজম গোপনে ভুয়া ভাউচার দেখিয়ে বরাদ্দের টাকা তুলে আত্মসাৎ করেন। সম্প্রতি বিষয়টি জানাজানি হয়।
দাড়িয়ারভিটা জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোত্তালেব বলেন, আমাদের মসজিদটি মুসল্লিদের দানের টাকায় চলছে। গত দুই বছরে মসজিদে কোন প্রকার সরকারি অনুদান প্রদান করা হয়নি। মসজিদ সংস্কারের নাম করে যারা টাকা তুলে আত্মসাত করেছেন তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করা হবে।
মসজিদ কমিটির সভাপতি রমজান আলী বলেন, এই মসজিদের নামে অর্থ বরাদ্দ হয়েছে তা এলাকার কেউ জানেনা। আমরা অনেক কষ্টে মসজিদটি সংস্কারের কাজ করছি। সরকারি বরাদ্দের টাকাটা পেলে আমাদের খুব উপকার হতো।
দাড়িয়ারভিটা জামে মসজিদ সংস্কার প্রকল্পের সভাপতি আলী আজম বলেন, মসজিদ সংস্কারের জন্য টিআর প্রকল্পের এক লক্ষ টাকা পেয়েছি। উক্ত টাকা ফুলছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজের পরামর্শে উড়িয়া ইউনিয়নের দারুস সালাম জামে মসজিদে প্রদান করা হয়েছে।
মসজিদের টাকা আত্মসাত করা হয়নি। তিনি সাংবাদিকদের এবিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলতে বলেন।
ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজ বলেন, দারুস সালাম জামে মসজিদের লোকজনের দাবীর প্রেক্ষিতে ওই মসজিদ সংস্কারের জন্য এক লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। দাড়িয়ারভিটা এলাকায় দুইটি মসজিদ হওয়ায় প্রকল্পের নাম ভুলবসত অন্যটা হয়েছে। প্রকল্পের সভাপতি বরাদ্দের টাকা দারুস সালাম জামে মসজিদ সংস্কারের কাজেই ব্যবহার করেছেন।
ফুলছড়ি উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শহীদুজ্জামান শামীম বলেন, দাড়িয়ারভিটা জামে মসজিদ সংস্কারের বরাদ্দকৃত টাকা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজের সুপারিশে প্রকল্প সভাপতিকে প্রদান করা হয়েছে। কাজ না করে থাকলে অর্থ ফেরতের জন্য সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | সাপ্তাহিক দারিয়াপুর

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com