রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:১২ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা :
গাইবান্ধায় কৃষক সমিতির জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত।। ছাদেকুল মাস্টার সভাপতি, জাহাঙ্গীর আলম সাঃ সম্পাদক হামলা মামলা করে কমিউনিস্ট পার্টিকে দমানো যাবে না- মিহির ঘোষ গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির উপজেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত এমদাদুল সভাপতি শফিকুল সাধারণ সম্পাদক গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ গাইবান্ধায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ গাইবান্ধায় কমিউনিস্ট পাার্টির বিক্ষোভ সমাবেশ যারা রাজনীতিকে খেলায় পরিণত করেছে তাদের লাল দেখিয়ে বিদায় করতে হবে – গাইবান্ধার জনসভায় প্রিন্স কাগজসহ শিক্ষা উপকরণের দাম কমানোর দাবিতে গাইবান্ধায় ছাত্র ইউনিয়নের বিক্ষোভ পল্লী রেশনিং চালুসহ ৬দফা দাবিতে গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির বিক্ষোভ আদিবাসী সাঁওতাল হত্যার বিচার করতে হবে, তাদের বাপদাদার জমি ফেরত দিতে হবে – অধ্যাপক এম এম আকাশ
শিরোনাম :
গাইবান্ধায় কৃষক সমিতির জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত।। ছাদেকুল মাস্টার সভাপতি, জাহাঙ্গীর আলম সাঃ সম্পাদক হামলা মামলা করে কমিউনিস্ট পার্টিকে দমানো যাবে না- মিহির ঘোষ গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির উপজেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত এমদাদুল সভাপতি শফিকুল সাধারণ সম্পাদক গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ গাইবান্ধায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ গাইবান্ধায় কমিউনিস্ট পাার্টির বিক্ষোভ সমাবেশ যারা রাজনীতিকে খেলায় পরিণত করেছে তাদের লাল দেখিয়ে বিদায় করতে হবে – গাইবান্ধার জনসভায় প্রিন্স কাগজসহ শিক্ষা উপকরণের দাম কমানোর দাবিতে গাইবান্ধায় ছাত্র ইউনিয়নের বিক্ষোভ পল্লী রেশনিং চালুসহ ৬দফা দাবিতে গাইবান্ধায় ক্ষেতমজুর সমিতির বিক্ষোভ আদিবাসী সাঁওতাল হত্যার বিচার করতে হবে, তাদের বাপদাদার জমি ফেরত দিতে হবে – অধ্যাপক এম এম আকাশ

হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি

সাপ্তাহিক দারিয়াপুর ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৬ আগস্ট, ২০২১
  • ৩২৪

Hits: 33

গাইবান্ধা সদর উপজেলার দারিয়াপুর বন্দরসহ বিভিন্ন এলাকায় দোকানে দোকানে ঘুরছে আস্ত একটি হাতি। হাতির পিঠে মাহুত। তিনি নানা রকম শব্দ করে ও নির্দেশ দিয়ে হাতিটি পরিচালিত করছেন। আর হাতি তার শুঁড় এগিয়ে দিচ্ছে দোকানদারের দিকে।
কোনও দোকানদার স্বেচ্ছায়, কেউ কেউ ভয়ে তার শুঁড়ে গুঁজে দিচ্ছেন টাকা। টাকার পরিমাণ সন্তোষজনক না হলে হাতি আবার নারাজ। তখন তার শব্দ আর শুঁড়ের নাড়ানাড়িতে ভয়ে দোকানদার আরেকটু বড় নোট বাড়িয়ে ধরে হাতিকে বিদায় করছেন।
তবে হাতির যেহেতু পকেট নেই, তাই হাতি প্রতিবারই টাকা বাড়িয়ে দিচ্ছে তার মাহুতের দিকে। আর সে টাকা ঢুকছে মাহুতের পকেটে।
শুধু বন্দরে নয় রাস্তার বিভিন্ন স্থানেও  হাতির সাহায্যে এই টাকা কামানোকে চাঁদাবাজি হিসেবে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।
বন্দরের খুচরা ব্যবসায়ী ও দোকানদারদের অভিযোগ, হাতির সাহায্যে চাঁদাবাজি করে যাচ্ছে এরা।
অবশ্য হাতির মাহুত সাপ্তাহিক দারিয়াপুরকে বলেন, হাতির খাবার যোগানোর জন্য এ চাঁদা উঠানো হচ্ছে। একোন উদ্দেশ্য নয়।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | সাপ্তাহিক দারিয়াপুর

কারিগরি সহায়তায় : শাহরিয়ার হোসাইন