রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৩:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গাইবান্ধা জেলা শিল্পকলা একাডেমীর নির্বাচন সম্পন্ন গাইবান্ধায় যুব ইউনিয়নের জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গাইবান্ধায় সিপিবির বিক্ষোভ মিছিল প্রেসক্লাব গাইবান্ধার অভিষেক ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠিত গাইবান্ধায় পুলিশে নিয়োগ পরীক্ষার ফল প্রকাশ খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং চিকিৎসার দাবিতে বিক্ষোভ গাইবান্ধায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত মহান রুশ বিপ্লব ও পার্টির ৪১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর ডাক মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গাইবান্ধায় কমিউনিস্ট পার্টি বিক্ষোভ গোবিন্দগঞ্জ সড়কে সকালেই প্রাণগেল ৬ জনের

ময়না কথা বলে, অন্য পাখি কথা বলে না কেন?

সাপ্তাহিক দারিয়াপুর ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৬ আগস্ট, ২০২১
  • ৫৭

সবচেয়ে ভালো ও সুন্দরভাবে কথা বলে ‘কঙ্গো আফ্রিকান গ্রে প্যারট’ নামে পরিচিত একজাতীয় আফ্রিকান তোতাপাখি। কাকাতুয়া, ময়না, টিয়া এমনকি কাকও কথা বলতে পারে। আসলে এসব পাখি কথা বলে না, মানুষের কথার অনুকরণ বা নকল করে মাত্র। এরা শব্দের অর্থ বোঝে না। মানুষের স্বরতন্ত্রী বা স্বরযন্ত্রের মতো কোনো অঙ্গ পাখির নেই। ওরা আসলে গলা দিয়ে হুইসেলের শব্দ করে এবং সেই শব্দতরঙ্গ এমনভাবে ওঠায়-নামায়, যা মানুষের কথার মতো শোনায়।

এ রকম শব্দ সৃষ্টির জন্য ওরা শ্বাসনালি এবং এর শেষাংশে যুক্ত সিরিঙ্কস ব্যবহার করে। এই সিরিঙ্কস শ্বাসনালির সঙ্গে সম্পর্কিত একটি প্রত্যঙ্গ। ময়না শ্বাস-প্রশ্বাসে ব্যবহৃত শ্বাসনালি দিয়ে বাতাস বের করার সময় নালির পেশিগুলোকে প্রয়োজন অনুযায়ী সংকুচিত ও প্রসারিত করে মানুষের কথার মতো শব্দ সৃষ্টি করে। এ জন্য কথা বলার সময় ময়না মাথা বাঁকা করে। সম্প্রতি গবেষণায় দেখা গেছে, ময়না-টিয়া-কাকাতুয়াজাতীয় পাখি কথা বলার সময় বাতাস ও শব্দ নিয়ন্ত্রণের জন্য জিহ্বাও ব্যবহার করে। ময়না অনেক সময় কয়েকটি শব্দ যুক্ত করে সরল বাক্যও গঠন করতে পারে। পরিস্থিতির সঙ্গে মিলিয়েও ওরা শব্দ উচ্চারণ করে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | সাপ্তাহিক দারিয়াপুর

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com